বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয়ে উদ্ধার হয়নি চুরির ১৫ কম্পিউটার, মূল হোতারা ধরা ছোঁয়ার বাইরে

প্রায় এক মাসের অধিক সময় পার হলেও এখনও উদ্ধার হয়নি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে চুরিকৃত ১৫টি কম্পিউটার। এমনকি জানা যায় নি এই চুরির ঘটনার মূলহোতা কে বা কারা ছিলো।

চুরির ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক দায়েরকৃত মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস.আই মিজান জানান, “অবশিষ্ট ১৫টি কম্পিউটার উদ্ধার করা সম্ভব হয় নি। তবে আমাদের তদন্ত কাজ অব্যাহত রয়েছে।”

এর আগে চুরির ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতারের পর গত ১৬ আগস্ট গোপালগঞ্জ জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অ‌তি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপার (সা‌র্কেল) মো. ছা‌নোয়ার হো‌সেন জানিয়েছিলেন, আটককৃত আসামীরা নির্দেশদাতাদের নাম জানিয়েছে। কিন্তু এরপর প্রায় একমাস পার হলেও এখনও এ ঘটনায় আর কাউকে আটক করা হয় নি। তদন্তের স্বার্থে ওই সময়ে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে নির্দেশ দাতাদের নাম প্রকাশ করা হয় নি।

এদিকে, বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে চুরির ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি গত ৬ সেপ্টেম্বর তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিলেও এখন পর্যন্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয় নি। এ বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবির রেজিস্ট্রার ড. নূরউদ্দিন আহমেদ জানিয়েছেন, “শৃঙ্খলা বোর্ডকে আমরা তদন্ত প্রতিবেদনের বিষয়ে অবহিত করেছি। কিন্তু শৃঙ্খলা বোর্ডের পক্ষ থেকে এখনও তদন্ত প্রতিবেদন চাওয়া হয় নি।”

প্রসঙ্গত, ঈদুল আজহার ছুটিতে বশেমুরবিপ্রবির কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি থেকে ৪৯ টি কম্পিউটার চুরি হয়। পরবর্তীতে ১৪ আগস্ট ঢাকার একটি আবাসিক হোটেল থেকে ৩৪ টি কম্পিউটার উদ্ধার করা হয়।

About Bangla Gov Jobs

Check Also

অভিযোগ ও অসন্তোষে জর্জরিত বশেমুরবিপ্রবির বিজয় দিবস হল

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) বিজয় দিবস হলের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অভিযোগ ও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন হলের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তাদের সঙ্গে কথা বলে জনা গেছে, সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) অনুদানে হলে যে সংস্কারকাজ হয়েছে তাতে তারা সন্তুষ্ট নন। এছাড়া, হলের গণরুমের পরিবেশ, খাবারের মানসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়েও অভিযোগ রয়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *