Breaking News

প্রাথমিকের সব সহকারী শিক্ষক বেতন পাবেন ১৩তম গ্রেডে

নতুন ও পুরাতন বিধিমালায় নিয়োগ পাওয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব সহকারী শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে বেতন পাবেন। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে গত রবিবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের বেতন ১৩তম গ্রেডে উন্নীত করা হলেও আগের বিধিমালায় নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে জটিলতা সৃষ্টি হয়েছিল। আগের বিধিমালা অনুসারে নিয়োগ পাওয়া এসএসসি বা এইচএসসি পাস করা শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডে বেতন দেওয়া যাচ্ছিল না। এ জটিলতা নিরসনে উদ্যোগ নেয় মন্ত্রণালয়।

গত রবিবার অর্থসচিবের কাছে এ বিষয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। ২০১৯ সালের নিয়োগবিধি জারি হওয়ার আগের বিধি অনুযায়ী যাঁরা সহকারী শিক্ষক হিসেবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ পেয়েছেন তাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্বিশেষে বেতন গ্রেড-১৩-এর সুবিধা পাওয়ার বিষয়ে মাঠপর্যায়ে নির্দেশনা পাঠাতে চিঠিতে বলা হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে বলা হয়েছে, সব শিক্ষকের দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা রয়েছে। কাজেই আগের বিধিমালার আওতায় নিয়োগপ্রাপ্ত সব সহকারী শিক্ষক ১৩তম গ্রেডে বেতন পেতে পারেন বলে এ মন্ত্রণালয় মনে করে। এ ছাড়া ২০১৯ সালের নিয়োগ বিধিমালা জারির পরে ২০১৩ সালের নিয়োগ বিধিমালা রহিত হবে। রহিতকরণ সত্ত্বেও ওই বিধিমালার অধীন যেসব কার্যক্রম নিষ্পন্ন হয়েছে, তা এ বিধিমালার অধীন সম্পন্ন হয়েছে বলে গণ্য হবে।

গত বছর নভেম্বর মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের বেতন গ্রেড-১৪ (প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত) এবং বেতন গ্রেড-১৫ (প্রশিক্ষণবিহীন) থেকে গ্রেড-১৩তে উন্নীত করা হয়। কিন্তু অর্থ বিভাগের সম্মতিপত্রে বলা হয়, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯-এর যোগ্যতা অনুযায়ী নিয়োগ পাওয়া শিক্ষকদের ক্ষেত্রে তা কার্যকর হবে। ২০১৯ সালের বিধিতে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের যোগ্যতা স্নাতক পাস নির্ধারণ করা হয়। ২০১৩ সালের বিধিতে শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এইচএসসি এবং পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্নাতক। আর ১৯৯১ ও ১৯৮৩ সালের বিধিতে শিক্ষাগত যোগ্যতা ছিল নারী প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এসএসসি এবং পুরুষ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে এইচএসসি।

লেখাপড়াবিডি/

About Bangla Gov Jobs

Check Also

গোপালগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগে শিক্ষক নিয়োগে ১২ বানান ভুল

ভুলে ভরা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বশেমুরবিপ্রবি)। গত ২৫ নভেম্বর ২০২১ রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) মো: মোরাদ হোসেন স্বাক্ষরিত বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপকের জন্য এ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যায়, সম্পূর্ণ বিজ্ঞপ্তিতে প্রায় ১২ টি বানান ভুল রয়েছে। এদের মধ্যে বিজ্ঞপ্তির শুরুতেই সহকারী অধ্যাপক বানান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *