গোপালগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে চোখে কালো কাপড় বেধে ধর্ষণ বিরোধী মানববন্ধন

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেমুরবিপ্রবি) চোখে কালো কাপড় বেধে ধর্ষণ বিরোধী ৭দফা দাবি নিয়ে মানববন্ধন পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আজ মঙ্গলবার (৬অক্টোবর) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে অংশ নেয় প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী।
 
শিক্ষার্থীদের উত্থাপিত দাবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ধর্ষণ আইন পুনঃবিচারের মাধ্যমে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করা, ধর্ষণজনিত ঘটনা বা অপরাধের জন্য আলাদা দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল গঠন, ৩০-৬০ কার্যদিবসের মাঝে বিচার সম্পন্ন করার প্রক্রিয়া ধর্ষিতার বিনামূল্যে চিকিৎসা এবং পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়া, প্রতি জেলায় ধর্ষণ প্রতিরোধে পুলিশের আলাদা টাস্কফোর্স গঠন করা, নির্জন রাস্তায় সচল সিসিটিভি স্থাপন করা, পূর্ববর্তী সকল ধর্ষণ মামলার রায় ৬ মাসের মধ্যে সম্পন্ন করা এবং দলীয় মদদে কোন ধর্ষণকে বা কোন অপরাধকে আশ্রয় দেওয়া হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
 
মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের পক্ষে শরিফ বলেন, ধর্ষনের মত জঘন্যতম আর ন্যক্কারজনক একটা অপরাধের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করতে হবে এটি জাতির জন্য লজ্জাজনক বিষয়। ধর্ষকের শাস্তি যেন মৃত্যু নিশ্চিত করে দৃষ্টান্তস্বরূপ এক মাসের ভিতর তা কার্যকর করা হয় যাতে ভবিষ্যতে এমন জঘন্যতম অপরাধ করার সাহস কেউ না পায়।
 
তিনি আরো বলেন, মিডিয়াতে ভাইরাল হওয়া বিষয় গুলো নিয়েই আমরা যত তোলপাড় করি কিন্তু অগোচরে রয়ে যায় আরো বহু ধর্ষণের ঘটনা। হাজারো ধর্ষনের ঘটনা আদালতে ঝুলতে থাকে বছরের পর বছর হয়না কোনো সমাধান এগুলো দ্রুত বিচারের কাজ সম্পন্ন করা প্রয়োজন।
 
মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী অন্য এক বলেন, দেশব্যাপী যেন ধর্ষণের মহোৎসব শুরু হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে একটাই খবর ধর্ষণ আর ধর্ষণ। তাই করোনাকালীন সময়েও ঘরে বসে থাকতে পারিনি। জানিনা বাসায় রেখে আসা আমার মা-বোন নিরাপদ কীনা। তাই সকল মা বোনের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ধর্ষকের যেন মৃত্যুদণ্ড নিশ্চিত করা হয় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সংসদ সদস্য এবং আইন প্রণয়ন মন্ত্রীর কাছে এটাই প্রত্যাশা।
 
 
 

About Bangla Gov Jobs

Check Also

রেইনট্রি হোটেলে ধর্ষণ মামলায় নারীর প্রতি অবিচার, বশেমুরবিপ্রবি’তে মানববন্ধন

রাজধানীর বনানীতে রেইনট্রি হোটেলে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় জড়িত আপন জুয়েলার্সের মালিকের ছেলে সহ পাঁচ আসামিকে খালাস দেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৭-এর বিচারক বেগম মোছা. কামরুন্নাহার। ঘটনাটির পুনরায় তদন্তের দাবি ও নারী বিচারেকের বক্তব্যের নিন্দা জানিয়ে মানববন্ধন করেছেন গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীবৃন্দ। আজ সোমবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *